বিনোদন

স্কুল থেকে সাসপেন্ড করতে চেয়েছেন প্রিন্সিপাল, নিজের মেয়েবেলার স্মৃতিকথা বললেন অভিনেত্রী সারা আলি খান

জনপ্রিয় বলিউড অভিনেতা সঈফ আলি খানের কন্যা সারা আলি খান। যদিও সঈফ ও অমৃতার বিবাহবিচ্ছেদ হয়ে গিয়েছে অনেক আগেই, তবে পতৌদি পরিবারে তার ভালোবাসা একটুও কমেনি। শুধু তাই নয়, ছোটো ভাই তৈমুরকে নিয়েই কেটে যায় তার বেশিরভাগ সময়। সারার(Sara Ali Khan) স্কুল জীবন কেটেছে মুম্বাইয়ের ধীরুভাই ইন্টারন্যাশনাল স্কুলে। এরপর উচ্চশিক্ষার জন্য পাড়ি দেন বিদেশে।

তবে ফিরে এসে সুযোগ পান বলিউডে অভিনয় করার। তার অভিনীত প্রথম সিনেমা ‘কেদারনাথ’। এছাড়া তাকে দেখা যায় ‘সিম্বা’, ‘লাভ আজ কাল’, ‘কুলি নাম্বার ওয়ান’ প্রভৃতি সিনেমায়। অভিনয়ের আগে তিনি মডেলিংও করেছেন। অন্যদিকে ‘কেদারনাথ’ সিনেমায় একসাথে কাজ করার পর অভিনেতা সুশান্তের সাথে প্রেমের সম্পর্ক শুরু হয় তার। পরে অবশ্য সিনেমা মুক্তির পর তাদের সম্পর্ক ভেঙে যায়।

এরপর ‘লাভ আজ কাল’এ কাজ করার পর কার্তিক আরিয়ানের সাথে তার সম্পর্ক নিয়ে গুঞ্জন শুরু হয়। সিনেমার শেষে এদের সম্পর্কও স্থায়ী হয়নি। বর্তমানে সারা অক্ষয় কুমারের সাথে জুটি বেঁধে নতুন ছবি ‘আতরঙ্গি রে’তে কাজ করছেন। এক কথায় বলতে গেলে তার কেরিয়ার বর্তমানে মধ্য গগনে। তবে তারকা হলে কি হবে, স্কুল জীবনে কিন্তু দুষ্টুমির জন্যেই বেশি পরিচিত ছিলেন তিনি।

স্কুল ছাড়ার এতোদিন পর, নিজের দুষ্টু-মিষ্টি ব্যবহারের কথা একটি সংবাদমাধ্যমকে শেয়ার করেছেন এই অভিনেত্রী। একবার নাকি তিনি একটি আঠার কৌটো স্কুলের সিলিং ফ্যানে রেখে দিয়েছিলেন। পরে ফ্যান ঘুরতে শুরু করলেই তা পড়ে যায় অন্যান্য পড়ুয়াদের ওপর। জানা যায়, এই ঘটনার জন্য তাকে সাসপেন্ড করতে চান প্রিন্সিপাল। তবে পরে তিনি ক্ষমা চাইলে তাকে মাফ করে দেওয়া হয়। এরপর নিজের কথামতো আর কোনো দুষ্টুমি না করে পড়াশোনায় মনোযোগ দিয়েছিলেন সারা।

Related Articles