অফবিটলাইফ স্টাইল

যেসব পুরুষের মধ্যে কুকুরের মতো এই ৫ টি গুন রয়েছে তাদের সঙ্গিনী হবে সন্তুষ্টি! জানুন এই পাঁচটি গুণ কি কি

বিভিন্ন পশু বা প্রাণীর মধ্যে প্রভুভক্ত প্রাণী হিসেবে আমরা কুকুরকেই চিনি। যে সব সময় তার প্রভুর খেয়াল রাখে, তার প্রভুর সুখ দুঃখে পাশে থাকে এবং তার মনিবকে পাহারা দেয়। আর এই প্রভুভক্ত প্রাণী কুকুরের মধ্যেই আছে এমন পাঁচটি গুণ যে গুণগুলি যদি কোন পুরুষের মধ্যে থাকে তাহলে সে তার স্ত্রী বা প্রেমিকাকে সুখী করতে পারে এবং তাদের মধ্যে কোনো মনোমালিন্য সৃষ্টি হয় না। চাণক্যের মতে কুকুরের মধ্যে থাকা পাঁচটি গুণসম্পন্ন যদি কোন পুরুষ থাকে তাহলে তার জীবনে সুখের অভাব হবে না। সেই পাঁচটি গুণ হলো-

জাগ থাকা – একটি কুকুরের প্রধান গুণ হলো তার প্রভুকে এবং প্রভুর পরিবারকে নিরাপদে রাখা। সেই কারণে কুকুররা সব সময় সতর্ক এবং সজাগ থাকে এবং তাদের ঘ্রাণ শক্তি প্রচুর। অর্থাৎ কোন পুরুষ যদি সব সময় সতর্ক বা সজাগ থাকে এবং তার পরিবারের কোন সমস্যা হলে সেটা দূর করার চেষ্টা করে তবেই সেই পুরুষ তার প্রেমিকার কাছে প্রিয় হয়ে উঠতে পারে।

নির্ভীক হওয়া- কুকুর হল এমন একটি প্রাণী যে কোন কিছুতে ভয় না পেয়ে তার মনিবের বিপদে ঝাঁপিয়ে পড়ে।অর্থাৎ কুকুর হল একটি নির্ভীক প্রাণী যে কোন কিছুর পরোয়া করে না। কোন পুরুষের মধ্যে যদি এই সাহসিকতা থাকে তাহলে তার পরিবার, প্রেমিকা বা স্ত্রী তাকে ভালবাসবে এবং তাকে সম্মান দেবে।

মান্যতা দেওয়া- কুকুররা সব সময় তার মালিকের কথা মেনে চলে এবং তার খারাপ সময়ে তার পাশে থাকে অর্থাৎ তারা তার প্রভুদের প্রতি সবসময় অনুগত থাকে। কোন পুরুষ যদি তার পরিবারের বা স্ত্রী এর কথা মেনে চলে এবং তার বিপদে পাশে দাঁড়ায় তাহলে সে তার প্রিয়তমা থেকে ভালোবাসা পাবে।

পরিতৃপ্ত হওয়া- প্রভুভক্ত প্রাণী কুকুরা সব সময় অল্পতেই সন্তুষ্ট হয়। প্রভুরা তাকে আহারের জন্য যতটুকু খাবার দেয় সে সেই খাবার টাই ভালবেসে খেয়ে নেয়। প্রভুদের প্রতি কোন রাগ বা সংকোচ প্রকাশ করে না। কোন পুরুষ ও যদি এরকম অল্পে সন্তুষ্ট হন তাহলে তার জীবন আর উজ্জ্বল ও সুন্দর হয়ে ওঠে।

প্রিয়তমাকে আনন্দে রাখা- কুকুররা সব সময় তার শাসকদের খুশি করার জন্য নানা রকমের ভান করে থাকে। তাদের মন খারাপ হলে তাকে আদর করে তার মান ভাঙ্গানোর চেষ্টা করে। কোন পুরুষের মধ্যে যদি এই গুণ বা দায়িত্ব থাকে তাহলে তাদের সম্পর্ক সারা জীবন অটুট থাকবে।

Related Articles