Ranu Mondal: ফলোয়ার্স বাড়াতেই ভিড় জমান তারা, খিদের খোঁজ নেন না কেউ! অভিযোগ রানু মন্ডলের

কেউ তার খিদের খোঁজ নেন না বরং নিজেদের সাবস্ক্রাইবার ও ফলোয়ার বাড়ানোর জন্যই তার বাড়িতে আসেন। ইউটিউবারদের বিরুদ্ধে এমনই একরাশ অভিযোগ তুললেন রানু মন্ডল(Ranu Mondal)। সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে একসময় জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিলেন তিনি। এমনকি বলিউডের নেপথ্যশিল্পী হিসেবেও কাজ করেছেন। কিন্তু তার ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ ফের তাকে ফিরিয়ে এনেছে আগের জীবনে।

বর্তমানে তাকে আর গান গাইতে দেখা যায় না বরং তার বাড়িতে সাক্ষাৎকার নিতে উপস্থিত হন একাধিক ইউটিউবাররা। এই বিষয়ে তিনি এবার সংবাদমাধ্যমের কাছে মুখ খুলেছেন। জানিয়েছেন, শুধুমাত্র তাকে বিরক্ত করার জন্য এবং নিজেদের ফলোয়ার বাড়ানোর জন্য তার বাড়িতে ঢুকে পড়েন ইউটিউবাররা। কিন্তু কেউ তাকে তাকে তার খিদের কথা জিজ্ঞেস করেনা। বেশিরভাগ দিনই না খেয়ে থাকতে হয় তাকে।

জানিয়েছেন সকালে উঠে লিকার চায়ের সাথে খান দুটো মেরি বিস্কুট। আর দুপুরবেলা বেশিরভাগ দিনই ৫ টাকার চাউমিন সেদ্ধ করে খেতে হয়, রাতে কিছুদিন খাবার জোটে আবার কিছুদিন জোটে না। খিদের জ্বালায় নানান উল্টোপাল্টা কাণ্ডকারখানা করতে দেখা যায় তাকে। আর নেটিজেনরা দেখে মনে করেন হয়তো তিনি মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়েছেন।

একাধিক ইউটিউবাররা তার অনিচ্ছা সত্ত্বেও তার বাড়িতে ঢুকে পড়েন এবং গান গাওয়ার অনুরোধ করেন তাকে। কিন্তু খিদের জ্বালায় তিনি গান গাইতে পারেন না উল্টোপাল্টা মন্তব্য করতে থাকেন। এখানেই শেষ নয় ইউটিউবারদের জন্য অনেকদিন নাকি স্নান পর্যন্ত করতে পারেন না তিনি। তাইতো বেশিরভাগ দিনই তাকে দরজায় তালা ঝুলিয়ে রাখতে হয়। যাতে ইউটিউবাররা বাড়িতে না ঢুকতে পারেন। তাই তার এটাই অভিযোগ যে, সকলে তাকে নিয়ে ঠাট্টা-তামাশা করলেও দিনের শেষে তিনি খেয়েছেন কিনা সেই খবর নেওয়ারও কেউ নেই।