বিনোদন

রাজকীয় ঐতিহ্য ভেঙে বিকিনি পরেছিলেন শর্মিলা ঠাকুর, সম্পর্ক ভাঙার জল্পনার মাঝে পাশে পেয়েছিলেন টাইগারকে

ভারতীয় ক্রিকেট ও বলিউডের যে কতখানি যোগসূত্র রয়েছে তা আর আলাদা করে বলার অপেক্ষা রাখে না। বলিউডের একাধিক তারকারা জীবন সঙ্গী হিসেবে বেছে নিয়েছেন ক্রিকেটারদের। সেরকমই এক জুটি মনসুর আলি খান পতৌদি(Mansoor Ali Khan Pataudi) ও শর্মিলা ঠাকুর (Sharmila Tagore)। একজন ক্রিকেটের উজ্জ্বল নক্ষত্র আর অন্যজন অভিনয় জগতের জনপ্রিয় নাম। তাদের আলাপ হয় ১৯৬৫ সালে হওয়া একটি ক্রিকেট ম্যাচের মাধ্যমে।

সেইসময় ভারতীয় দলের অধিনায়ক ছিলেন পতৌদি। অন্যদিকে শর্মিলা ঠাকুর তখন অভিনয়ে নিজের কেরিয়ার সবে শুরু করেছেন। সত্যজিৎ রায় পরিচালিত ‘অপুর সংসার’এর দ্বারা প্রচুর খ্যাতি অর্জন করেছিলেন তিনি। এরপর মুম্বাই পৌঁছে বলিউডে দিতে থাকেন একের পর এক হিট সিনেমা। দীর্ঘ চার বছর চুটিয়ে প্রেম করেছেন এই জুটি। তবে ধর্ম আলাদা হওয়ার কারণে বাধা এসেছিল বিয়েতে।

যদিও শর্মিলা ঠাকুর ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছিলেন পতৌদি পরিবারের বউ হওয়ার জন্য। অন্যদিকে বিয়ের কিছুদিন আগে প্রকাশ্যে আসে এই অভিনেত্রীর বিকিনি পরিহিত কিছু ছবি। যা দেখে সকলে মনে করেন, হয়তো এবার তাদের সম্পর্ক ভেঙে যাবে। তবে নিজের কাজের ক্ষেত্রে তিনি আপোস করেননি, সাবলীলভাবে শ্যুট করেন সেই ছবি। আর সেইসাথে পাশে পেয়েছিলেন টাইগারকে।

শুধু তাই নয় টাইগারের মা বেগম সাজিদা সুলতানাও (Sajida Sultan) ছিলেন যথেষ্ট আধুনিক। পরবর্তী সময়ে শর্মিলা নিজের ধর্ম পরিবর্তন করে ‘আয়েশা বেগম’(Ayesha Begum) নাম নিয়ে সাজিদা বেগমের বিয়ের পোশাক পরে বিয়ে করেছিলেন টাইগারকে। অন্যদিকে শর্মিলা একটি সাক্ষাৎকারে বলেন, তিনিও ছুটি কাটাতে গিয়ে শর্মিলার সামনে বিকিনি পরেছেন। একইভাবে শর্মিলাও কোনোদিন করিনার কোনো স্বাধীনতায় বাধা দেননি।

Related Articles