অফবিট

মৃত্যুর মুখ থেকে মেয়েটিকে বাঁচিয়ে ৮ বছর পর চমৎকার প্রতিদান পেলেন রিক্সাচালক

ডিজিটাল এই যুগে সবাই ব্যস্ত, কার কি হলো সেটা সবসময় দেখার সময় হয়না মানুষের। অনেকেত আবার জানতেও চায়না ঠিক কি হয়েছে। নিজেকে নিয়ে মানুষ এতটাই ব্যস্ত হয়ে পড়েছে। একে অপরকে সাহায্য করছে এমন ঘটনা খুব কমই ঘটে আজকের দিনে।

আবার এমন’ও দেখা যায় শত ব্যস্ততার মধ্যেও কেউ যদি কারো উপকার করে সে কথাই’বা ক’জন মনে রাখে? ক’জন দেয় সেই উপকারের প্ৰকৃত সন্মান। উপকৃত হওয়ার পর এক মুহূর্ত ও দেরি করে’না ভুলে যেতে। কিন্তু এ’ক্ষেত্ৰ এমন হয়নি, উপকারের বদলে পেয়েছে এক মূল্যবান উপহার।

এই ঘটনা ঘটেছে বেশ কিছু দিন আগে। এক রিক্সা চালক প্রতিদিনের ন্যায় রিক্সা নিয়ে বেরিয়েছিল তার রোজগারের উদ্দেশ্যে। হটাৎ তিনি শুনতে পান একটি মেয়ে তার রিক্সা দার করতে বলছে, সে ঘুরে দেখে মেয়েটি ছুটতে আরম্ভ করে রেল লাইন’এর দিকে। মেয়েটি সেদিন স্থির করেছিল আত্য’হত্যা করবে বলে। কিন্তু মেয়েটির এই ইচ্ছা পূর্ণ হতে দেয়নি ওই রিক্সা চালক। মেয়েটিকে সাক্ষাৎ মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচিয়ে’ছিল সেদিন। এবং তার পর মেয়েটিকে বাড়িতেও পৌঁছে দিয়েছিলো।

মেয়েটি এক ধোনি পরিবারের মেয়ে ছিল। ওই ঘটনার পরথেকে মেয়েটি স্কুল বা টিউশন’এ এক কথায় যেখানে যেত ওই রিক্সায় চেপে’ই যেত। রিক্সা চালক বয়সের ভরে তার কর্ম ক্ষমতা হারিয়ে ফেলে, ওই ঘটনার প্রায় ৮ বছর পর এমনটা ঘটে। তার এমন পরিস্থিতি হয় যে তাকে হাসপাতালে যেতে হয়, আর সেখানেই দেখা হয় ওই মেয়েটির সাথে। মেয়েটি তাকে এমতবস্থায় দেখে তাকে ধন্যবাদ দিয়ে বলেন “ আপনি আমাকে আত্মহত্যার হাত থেকে বাঁচিয়েছিলেন বলেই আজ আমি ডাক্তার হতে পেরেছি, তাই আপনার চিকিৎসার সমস্ত দায়ভার এখন থেকে আমার”।

Related Articles